জীবিতকে ‘মৃত দেখিয়ে’ দুইজনকে গ্রেফতার, হাইকোর্টে ক্ষমা চাইল পুলিশ

অক্টোবর ২৩ ২০২০, ০৪:২১

Spread the love

জীবিত ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়ে দুই ত’রুণকে গ্রেফ’তারের ঘটনায় হাইকোর্টে ক্ষ’মা চাইল পুলিশ। আর অপরাধ না করেও গ্রেফ’তার দু’জন কীভাবে স্বী’কারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে তা নিয়ে বিস্ময় প্র’কাশ করেছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে এ মা’মলায় গ্রেফতার দুর্জয়কে জামিন আর জীবন’কে নির্যাত’নের ঘটনায় বিচারবিভাগীয় তদন্তের নি’র্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) হাই’কোর্টে সশরীরে এসে নিজের বেঁচে থাকার প্রমাণ দিলেন চট্টগ্রামের দিলীপ রায়। যাকে হত্যার অপরাধে দিলীপের পূর্ব পরিচিত দুই তরুণ জীব’ন ও দুর্জয়কে ২০১৯ সালের ২৫ এপ্রি’ল গ্রেফতার করে চট্টগ্রামের হালিশহর থানা পুলিশ। দুই তরু’ণের কাছ থেকে নেয়া হয় স্বীকারোক্তিমূলক জবা’নবন্দিও।

দিলীপ রা’য় বলেন, ওরা (জীবন ও দুর্জয়) আমার সা’থে কাজ করতো। আমাকে দাদা ডাকতো। এরপর পুলিশ ওদের গ্রেফতার করেছে। আমাকে হত্যা’র অপরা’ধে।

পুলিশের ভয়ভীতি’ আর নির্যাত’নের মুখে দিলীপকে হত্যা না ‘করলেও স্বীকা’রোক্তি দেন বলে হাইকোর্টকে জা’নান দুই তরুণ জীবন ও দুর্জয়।

জীবন চ’ক্রবর্তী বাবা জানান, কিছু সাদা পোশাকের পু’লিশ এসে আমার ছেলেকে নিয়ে গে’ছে। ওরা (পুলিশ) আমার ছে’লেকে চারদিন ধরে নি’র্যাতন করেছেন।

এ বিষ’য়ে ক্ষোভ জানিয়ে হাইকোর্ট মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস’আই সাইফুজ্জামানকে প্রশ্ন করেন, পুলিশের এত বড় ভুল কিভাবে হলো?

ডেপুটি অ্যা’র্টনি জেনারেল সারওয়ার বাপ্পী বলেন, আদাল’ত দুর্জয়কে জামিন দিয়েছেন। একই সঙ্গে এ ঘটনায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমি’শনারকে তদন্ত করতে নির্দেশ দি’য়েছেন।

এদিকে, অ’জ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির লাশের পরিচয় স’নাক্তে ভুল হওয়াতেই এমন ঘটনা ঘটে’ছে বলে দাবি করে পুলিশ।

চট্টগ্রাম হালিশহর থানা এস’আই মো. সাইফুজ্জামান বলেন, আদলাতেআইন সঙ্গত কা’রণে মামলায় যে সব কার্যাদি হয়েছে; সেগুলো আদালতকে বুঝি’য়ে বলেছি।

পরে আদা’লত দিলীপ হত্যা মামলায় দুর্জ’য়কে জামিন দেন। ১ বছর ৫ মাস বি’নাঅপরাধে জেল খাটার পর মু’ক্তি পায় দুর্জয়। অন্যদিকে জীবনকে নি’র্যাতন করে স্বীকারোক্তি নে’য়ার ঘটনায় বিচারবিভাগীয় ত’দন্তের আদেশ দেন হাইকোর্ট।

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »