আশা এনজিওর শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধে ১২৫০ জন আশা হারিয়ে বেকার

ডিসেম্বর ২৭ ২০২০, ২০:১০

Spread the love

আজকের ঝলক নিউজ নিজস্ব সংবাদ দাতা : 

করোনা মহামারীতে আশা এনজিওর ১২৫০জন শিক্ষা কার্যক্রমে থাকা শিক্ষক ও সুপারভাইজার বেকার হয়ে পড়েছেন । করোনার শুরুতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সাথে সাথে আশা স্কুলগুলোও বন্ধ করে দেওয়া হয় । ৮ জুন ২০২০ আশা প্রাক প্রাথমিক শিক্ষা শক্তিশালীকরণ কর্মসূচী সংক্রান্ত নির্দেশনায় জানানো হয়  দেশের করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় কর্মসূচী স্থগিত করা হলো ।   আরো জানানো হয় কর্মসূচী পুনরায় চালু করার বিষয় পরবর্তীতে যথাসময়ে জানানো হবে ।

যদিও  ১০ ডিসেম্বর ২০২০ একটি চিঠিতে প্রাথমিক অধিদফতর জানিয়েছেন বিভিন্ন এনজিও কর্তৃক প্রাক প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রম সম্পর্কে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর অবগত নয় এবং জটিলতা তৈরী হয়েছে এবং একটি ছক দিয়ে তথ্য চাওয়া হয় ।

আশা এনজিও’র অনেক কর্মী করোনা পরিস্থিতিতে তাদের কর্ম বন্ধ হওয়ায় বেশ বিপাকে পড়েছেন । নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানান এমতাবস্থায় আমরা কি করতে পারি ? । কর্ম হারিয়ে আমরা বেশ অসহায় হয়ে পড়েছি । প্রাথমিক অধিদফতরসহ বিভিন্ন দফতরের সহযোগিতা কামনা করেছেন এবং আশার কাছে মানবিক বিষয়টি বিবেচনার জন্য অনুরোধ করেছেন ।

দেশের সবচেয়ে বেশী ব্রাঞ্চ রয়েছে আশা এনজিওর যাদের একমাত্র ব্যবসা ক্ষুদ্র ঋণ। উন্নয়ণ কাজ বলতে শুধু এই শিক্ষা প্রকল্পটিই ছিলো আশার যাও স্থগিত যদি কোন দাতা সংস্থার সহযোগিতা ছাড়া নিজেদের ব্যবসার টাকায় সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করে আসছিলো আশা ।

এখন আশার কাছেই আশা রইলো এই ১২৫০ বেকার শিক্ষক ও সুপারভাইজারের ।

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »