কুষ্টিয়ায় ছাত্রীকে ধর্ষণ মাদরাসা শিক্ষকের

অক্টোবর ০৭ ২০২০, ০৩:০১

Spread the love

কুষ্টিয়ার মিরপুরে ছা’ত্রীকে ধর্ষ’ণের অভিযো’গে মাদরাসার সুপা’র মাওলানা আব্দু’ল কাদেরকে আ’টক করেছে পুলি’শ। সোমবার রাতে মির’পুর থানা পু’লিশ অভিযান চালিয়ে তাকে আ’টক করে। অভিযু’ক্ত মাওলানা আ’ব্দুল কাদের কু’ষ্টিয়া মিরপুর উপজে’লার পোড়া’দহ ইউনিয়নের স্বরু’পদহ চকপাড়া এলাকা’র সিরাজুল উলুম’ মরিয়ম নেসা মা’দরাসার সুপার হিসেবে ক’রত রয়েছেন।

মির’পুর থানার ওসি আবুল কা’লাম গ্রেফতা’রের বিষয়টি নিশ্চি’ত করেছেন।

পুলি’শ জানায়, নির্যাতিতা ওই মাদরা’সার একজন আবা’সিক ছা’ত্রী। সপ্তা’হের ৬ দিন সে ওই মাদ’রাসায় থাকে। প্রতি শুক্র’বার সকা’লে তার বাবা তা’কে বাড়ি নি’য়ে যান, আবা’র শনিবার সকা’লে পৌঁছে দেন মাদ’রাসায়। গত শনি’বার সকালে মে’য়েটির বাবা তা’কে মাদরাসা’য় পৌঁছে দেন। পরদিন ভোরে ফ’জরের নামা’জের সময় মাদ’রাসার সুপার মাও’লানা আব্দুল কা’দের মেয়ে’টিকে নি’জ কক্ষে ডেকে নিয়ে গি’য়ে ধ’র্ষণ করেন। ঘটনা’র পর মাদরা’সার সুপার মাওলা’না আব্দুল কাদের বিষ’য়টি কাউ’কে না জানা’নোর জন্য মেয়েটি’কে শাসি’য়েও দে’ন। তবে মেয়ে’টি সোমবার স’কালে তার এক সহ’পাঠিকে বিষয়’টি জানায়। ওই সহপা’ঠি ঘট’নাটি নিজের বাবা’কে জানা’লে তা এলা’কায় জানা’জানি হয়। পরে এলা’কায় ব্যাপক তো’লপাড়ের সৃ’ষ্টি হয়।
বিষ’য়টি জানার পর মেয়ে’টির বাবা এ ঘট’নায় আব্দুল কাদেরের বি’রুদ্ধে মিরপুর থা’নায় লি’খিত অভি’যোগ করেছেন।

মির’পুর থানার ওসি আবুল কালাম বলে’ন, মেয়ে’টির বাবার অভি’যোগের ভিত্তি’তে ভিকটি’মকে উদ্ধা’র করে মেডি’কেল টে’স্টের জন্য কুষ্টি’য়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠা’নো হয়েছে। অভি’যোগের প্রেক্ষি’তে সোমবার রাতে’ই অভিযা’ন চালিয়ে মা’দরাসার সু’পার মাওলানা আব্দু’ল কাদেরকে আট’ক করা হয়ে’ছে।

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »