সাহসী নারী লাইজু বেগমকে পুরস্কৃত করলেন বিএমপি কমিশনার।

সেপ্টেম্বর ২৭ ২০২০, ২০:১১

Spread the love
ছিনতাইয়ের আসামী গ্রেফতার করার মাধ্যমে অপরাধ দমনে পুলিশকে সহায়তা করার স্বীকৃতি স্বরুপ মোসাঃ লাইজু বেগম (৪২), স্বামীঃ মোঃ আমির হোসেন সাং-উত্তর বাহেরচর, (০৮নং ওয়ার্ড, ০৩ নং দেহেরগতি ইউনিয়ন) থানা-বাবুগঞ্জ, জেলা-বরিশাল কে  ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রিঃ বিএম কলেজ অডিটোরিয়াম বরিশালে মাসিক কল্যাণ সভায় মাননীয় বিএমপি কমিশনার জনাব মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএম-বার মহোদয় সম্মাননা প্রদান করেন।
মোসাঃ লাইজু বেগম (৪২) গত ২৩ আগষ্ট ভোরে লঞ্চে ঢাকা থেকে বরিশাল লঞ্চ ঘাট নেমে রহমতপুর মেয়ের বাড়ি যাওয়ার জন্য ব্যাটারী চালিত রিকশায় ওঠেন।প্রায় ২০ মিনিট পরে রিকশা চালক মোঃ ছালাম কাশীপুর মহামায়ার পোল এর পশ্চিমে লাদেন সড়কের মধ্য একটি কালভার্টের উপর হঠাৎ রিকশা থামানোর কারণ জানতে চাইলে, রিকশা চালক লাইজু বেগমকে খুনের ভয় দেখিয়ে তার গলা চেপে ধরে সাথে থাকা মালামাল ছিনিয়ে নেয়ায় লাইজু বেগম ভয়ে চিৎকার করলে রিকশা চালক তাকে ধাক্কা দিয়ে ময়লা আবর্জনার ড্রেনের মধ্য ফেলে দিয়ে চলে যায়।
পরবর্তিতে ভুক্তভোগী স্থানীয়দের সহযোগিতায় অন্য একটি রিকশায় রহমতপুর তার মেয়ের বাড়ি গিয়ে তার মেয়েকে জানালে দুপুরে লাইজু বেগম ও তার মেয়ে নিয়ে রিকশা চালককে খুঁজতে বরিশাল আসেন।
অনেক খোঁজাখুজির পরে রিকশা চালককে বিবির পুকুরের পাড়ে দেখতে পেয়ে কোতয়ালী থানা পুলিশকে অবহিত করলে টহলরত এসআই বশির সহ তার টিম রিকশা চালকে আটক করে এয়ারপোর্ট থানায় হস্তান্তর করেন।
ব্যপক জিজ্ঞাসাবাদের পরবর্তিতে এয়ারপোর্ট থানার সহায়তায় রিকশা চালক ছালাম হাওলাদারের বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে লাইজু বেগমের ছিনতাই হওয়া মালামাল উদ্ধার করেন।
এবিষয়ে বিএমপি এয়ারপোর্ট থানা কর্তৃক ছিনতাইকারী মোঃ আঃ ছালামের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ সহ ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত রিকশা জব্দ করা হয়েছে ।


Translate »