৬৫ শতাংশ পাকিস্তানির ধারণা ভুল পথে যাচ্ছে দেশটি

অক্টোবর ০৬ ২০২০, ০৩:২১

Spread the love

বেশ চাঞ্চল্য’কর তথ্য উঠে এল এক সমী’ক্ষায়। পাকি’স্তানের নাগরিক’দের ওপর করা এক সমী’ক্ষা জানা’চ্ছে সেদে’শের ৬৫ শতাং’শ নাগরিক মনে করে’ন ২০১৯ সাল থে’কেই ভুল পথে যা’চ্ছে পাকিস্তান। ফ্রান’ন্সের এক সমীক্ষক সংস্থা এলপি’এসওএস জা’নাচ্ছে এই তথ্য।

এলপিএ’সওএস বিশ্বের তৃতী’য় বৃহত্তম সমী’ক্ষা সংস্থা। রবিবা’র পাকিস্তানের নাগরিক’দের ওপর করা এই সা’র্ভে রিপোর্ট প্রকা’শ করে তারা। রিপো’র্টে জানা গেছে, পাকি’স্তানের শহরাঞ্চল ও শহ’র থেকে প্রতি ১০০০ জ’নে সমীক্ষা চালা’নো হয়। ৫০ শ’তাংশ পুরু’ষ ও ৫০ শতাংশ নারী’কে বেছে নে’ওয়া হয়, যাদের বয়’স ১৮ বছরের ও’পরে। চলতি বছরে’র সেপ্টেম্বর মা’সে এই সমী’ক্ষা করে এল’পিএসওএস।

সং’স্থা জা’নাচ্ছে, এই সমী”ক্ষার না’ম দেও’য়া হ’য়, ‘Consumer Confidence Survey in Pakistan’, জা’না গেছে,

১. প্র’তি চার জন পাকি’স্তানি নাগরিকের ম’ধ্যে তিনজনই দে’শের শাসন ব্যবস্থার ওপর ও সরকা’রের ওপর অস’ন্তুষ্ট। তারা ম’নে ক’রেন সঠিক পথে যাচ্ছে না দেশ। পরিব’র্তন দরকার।
২.  পাঁচ জ’নের মধ্যে ৪ জন পা’ক না’গরিক মনে করে’ন আগামী ছয় মাসে পাকি’স্তানের অর্থনৈতিক ও সা’মাজিক পরিস্থি’তি আ’রও খারাপ হ’বে।
৩. প্র’তি চার জনের মধ্যে তি’নজন পাকিস্তা’নের নাগরি’কের ধারণা দেশের অর্থ’নৈতিক অবস্থা একেবা’রে তলানিতে ঠেকে’ছে।
৪. প্রতি পাঁচজনের ম’ধ্যে দু’জন পাকিস্তান না’গরিক মনে করে ব্যক্তিগত ভা’বে অর্থনৈতিক দিক থেকে পিছি’য়ে রয়েছে তাদের দেশ।
৫. পাকিস্তা’নিদের সবথে’কে বড় দুশ্চি’ন্তার বিষয় কর্মসং’স্থানের অভাব। তার ম’ধ্যে রয়েছে অত্যা’ধিক মূল্যবৃদ্ধি ও দা’রিদ্র্য।
৬. পা’কিস্তান প্রশাস’নের দুর্নীতিও রীতিম’তো চিন্তার বিষয় সা’ধারণ নাগরি’কের। পঞ্জাব প্রদে’শ, খাইবার পাখতু’নখোয়া, সিন্ধ প্রদে’শে বিদ্যু’তের অভা’বও মাথাব্যথা হয়ে দাঁড়া’চ্ছে।
৭. জীব’নযাত্রার খর’চ যে হারে বাড়’ছে, সে হারে অর্থনৈ’তিক ভি’ত্তি নেই পাকি’স্তানে। ৮. ২০ জন নাগ’রিকের মধ্যে মাত্র এক’জন মনে করেন ‘স্থানীয় ভিত্তি’তে অর্থনৈ’তিক দি’ক থেকে শ’ক্তিশালী পা’কিস্তান।
৯. প্র’তি দু’জন নাগ’রিকে একজন ম’নে করেন গত বছর থে’কে চলতি বছরে ‘তাদের প্র’ত্যেকের কেউ না কেউ পরি’চিত কা’জ হারিয়ে’ছেন। ২০১৮ সালে’র আ’গস্ট মাস থে’কে ২০২০ সালের আ’গস্ট মাসের মধ্যে ৩১ শতাং’শ বেড়ে’ছে এই প্রবণ’তা।

সূত্র : কলকাতা টোয়েন্টিফোরের।


Translate »