ভারতের হোটেলে ৯ বাংলাদেশি তরুণী উদ্ধার

সেপ্টেম্বর ২৮ ২০২০, ০২:৩৮

Spread the love

চাকরির টোপ দিয়ে ভা’রতে নিয়ে যৌ’ন ব্যবসায় বাধ্য করানো বড়সড় একটি চক্রের খোঁজ পেয়েছে দেশটির পু’লিশ। তাদের ধরতে অ’ভিযান চালাতে নেমে শনিবার ১৩ জনকে উ’দ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯ জনই বাংলাদেশি। পশ্চিমবঙ্গের উঠতি এক মডেল সম্প্রতি চক্রটির বিষয়ে পু’লিশের কাছে অ’ভিযোগ করলে এই অ’ভিযান চালানো হয়।

দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, চক্রটি অল্প বয়সী মে’য়েদের ইন্দোরের বিজয় নগর এলাকার একটি হোটেলে আ’ট’কে রেখেছিল।

বিজয় নগর পু’লিশ জানিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গের ওই মডেল সম্প্রতি মুম্বাইয়ের আরেক মডেলের সঙ্গে একটি ইভেন্টে অংশ নেন। ইভেন্টের নারী ম্যানেজারের প্রস্তাবে কাজ করতে গিয়ে তারা ফাঁদে পড়েন। দুজনকে মা’রধর করে যৌ’ন ব্যবসায় বাধ্য করা হয়। পরে তারা কৌশলে সেখান থেকে পালিয়ে থা’নায় আশ্রয় নেন।উ’দ্ধার হওয়া ১৩ জনের বয়স ১৬ থেকে ৩০।

ইন্দোর পু’লিশের ডিআইজি হরিণারায়ণচরী মিশ্র স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘মানব পাচার এবং যৌ’ন ব্যবসায় বাধ্য করানোর অ’ভিযোগে তিন নারীসহ মোট ১০ জনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে। তার সবাই ইন্দোরের বাসিন্দা। বাংলাদেশি মে’য়েদের চাকরির প্রলো’ভন দেখিয়ে অ’বৈধভাবে ভা’রতে এনে জো’র করে এই কাজ করানো হচ্ছিল।’

পু’লিশ সদস্যদের কাজে খুশি হয়ে ডিআইজি সবাইকে ২০ হাজার রুপি করে পুরস্কার দেয়ার কথা জানিয়েছেন।গ্রে’প্তার হওয়া সাত পুরুষের মধ্যে তিনজনের নাম জানা গেছে: নবীন সিসোদিয়া, কুলদীপ চন্দ্রস্বামী, রাজেন্দ্র দাওয়ার।

এর আগে ১২ সেপ্টেম্বর একইভাবে দেশটির গুজরাট রাজ্যের সুরত এলাকার একটি স্পা সেন্টার থেকে ১৪ বছর বয়সী এক বাংলাদেশি কি’শোরীকে উ’দ্ধার করা হয়। খুলনা থেকে পাচার হওয়া মে’য়েটি মোট চারবার বিক্রি হয়!


Translate »