যুদ্ধের দ্বার’প্রান্তে রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্র

সেপ্টেম্বর ২০ ২০২০, ০০:৪৯

Spread the love

যু’দ্ধবি’ধ্বস্ত সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে এবার বাড়তি সে’না এবং সাজোয়া যান মোতায়েন করেছে যু’ক্তরাষ্ট্র। গৃহযু’দ্ধে বি’ধ্বস্ত সিরিয়ায় অবস্থান নেয়া রাশিয়ার সে’নাদের সঙ্গে একাধিকবার সং’ঘর্ষে জড়িয়ে পড়ায় শতাধিক মা’র্কিন সে’না এবং ছয়টি যু’দ্ধট্যাংক পাঠিয়েছে পেন্টাগন।

এ বিষয়ে মা’র্কিন নৌবাহিনীর ক্যাপ্টেন বিল আরবান জানান, সিরিয়ায় আ’মেরিকান এবং যৌথ বাহিনীকে বাড়তি সুরক্ষা দিতেই এমন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

উত্তরপূর্বাঞ্চলে মা’র্কিন এবং রুশ বাহিনী নিয়মিত টহল দেয়। এ বছর দুই বাহিনী বেশ কয়েকবার মুখোমুখি হওয়ায় ওই অঞ্চলে উত্তে’জনা বেড়েছে। এতে উভ’য়পক্ষ যে কোনো সময় আবারো সংঘাতে জড়িয়ে পড়তে পারে।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ‘ইউএস সেন্ট্রাল কমান্ড’র এক মুখপাত্র বলেন, ‘যু’ক্তরাষ্ট্র সিরিয়ায় অন্য কোনো দেশের অবস্থান করা বাহিনীর সঙ্গে সংঘাতে জড়াতে চায় না’।

এ মা’র্কিন কর্মক’র্তা সরাসরি রাশিয়ার নাম উল্লেখ না করলেও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেক কর্মক’র্তা বলেন, ‘উত্তরপূর্ব সিরিয়ায় সে’না মোতায়েন বৃদ্ধির মাধ্যমে আম’রা মস্কোকে স্পষ্ট করে পারষ্পরিক সমঝোতার মাধ্যমে সংঘাত কমিয়ে আনার যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে তা মেনে চলার কথা বলছি।

সিরিয়ার উত্তরপূর্বাঞ্চলে এখনো প্রায় পাঁচশ’ মা’র্কিন সে’না অবস্থান করছেন। সেখানে আই’এসের বি’রুদ্ধে ল’ড়াইয়ে কুর্দি বাহিনীকে সহায়তা করছে বলে দাবি তাদের। এর মধ্যে সিরিয়ার উত্তরপূর্বাঞ্চলের রুশ সে’নাদের দমিয়ে রাখতে অ’তিরিক্ত সে’না এবং সাজোয়া যান মোতায়েন করেছে যু’ক্তরাষ্ট্র।

আ’মেরিকার এ ধরনের পদক্ষেপের এখনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি মস্কো।


Translate »