কী খেলে করোনা মুক্ত হওয়া যাবে

এমন কী খাবার আছে যা খেলে করোনা ভাইরাস আক্রমণ করতে পারবে না ?

জুন ০৮ ২০২০, ১৯:৫৬

Spread the love

ঝলক নিউজ :

কী খেলে করোনা মুক্ত হওয়া যাবে ? এমন কোনো খাবার কি আছে যা খেলে করোনা ভাইরাস আক্রমণ করতে পারবে না? বরং কুপোকাত হয়ে যাবে ? এরকম অনেক প্রশ্ন জাগে মনে । তবে জানতে হবে সঠিক উত্তর । আজকের ঝলকে পাচ্ছেন বসুন্ধরা করোনা হাসপাতালের একজন ডাক্তারের কিছু টিপস । 

১. এমন কোনো খাবার কি আছে যা খেলে করোনা ভাইরাস আক্রমণ করতে পারবে না? বরং কুপোকাত হয়ে যাবে?
উত্তর : না, নেই।

২. এমন কোনো খাবার আছে কি যেটা না খেলে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা যাবে না?
উত্তর : না, নেই।

৩. তাহলে খাবারের ব্যাপারে পরামর্শ কী?
উত্তর : সুষম খাদ্য বা ব্যালেন্সড ডায়েট খেতে হবে। সেসব খাবার থেকেই শরীর তার প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান নিয়ে নেবে।

৪. কোন কোন খাবার বেশি খাব?
উত্তর : এমন খাবার বেশি খেতে হবে যা আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়ায়। আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাই করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে মূল যুদ্ধটি করে। ভিটামিন সি, জিঙ্ক, ম্যাগনেশিয়াম ইত্যাদি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

৫.কোথায় পাব ভিটামিন সি?
উত্তর : পেয়ারা, আমলকি, লেবু, জাম্বুরা, কমলা, টমেটো, কাঁচামরিচ, মিষ্টি আলু ইত্যাদিসহ অন্যান্য মৌসুমি ফলমূল এবং শাকসবজিতে।

৬. আচ্ছা জিঙ্কের কথা বলছিলেন, এটা কোন খাবারে পাব?
উত্তর : মাছ, মাংস, ডিম, দুধ, বীচি, বাদাম, ডাল এবং গমজাতীয় খাবারে জিঙ্ক থাকে।

৭. তাহলে ম্যাগনেসিয়াম কোন খাবারে থাকে?
উত্তর : পালংশাক, টক দই, কলা ইত্যাদি খাবারে।

৮. দৈনিক কতো রকমের শাকসবজি ও ফল খাব?
উত্তর : দিনে কমপক্ষে দুধরনের শাকসবজি এবং এক ধরনের ফল খাওয়া ভালো।

৯. শাকসবজি কীভাবে কাটতে হবে?
উত্তর : বড় বড় টুকরো করে কাটতে হবে।

১০. শাকসবজি রাঁধতে হবে কীভাবে?
উত্তর : কম তাপে ঢেকে রান্না করতে হবে যাতে পুষ্টি উপাদানগুলো অটুট থাকে।

১১. মাছ, মাংস, ডিমও কি অল্প আঁচে রান্না করব?
উত্তর : না। এগুলো বেশি আঁচে সময় নিয়ে রান্না করতে হবে যেন ভালোভাবে সেদ্ধ হয়।

১২. রান্নার সময় ভাতের মাড় কী করব?
উত্তর : না ফেলাই শ্রেয়।

১৩. রান্না ও খাওয়ার আগে কোনো বাড়তি সতর্কতা নিতে হবে?
উত্তর : ভালো করে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিতে হবে।

১৪. ভিটামিন-ডি-এর ব্যাপারে অনেক কথা শোনা যাচ্ছে। এ সম্পর্কে কিছু বলবেন?
উত্তর : ভিটামিন-ডি আমাদের শরীরের সুস্থতার জন্য সবসময়ই একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। এটি আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ায়। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে একটি বড় সংখ্যক মানুষের শরীরে ভিটামিন ডি-এর স্বল্পতা দেখা গেছে। ভিটামিন-ডি-এর সবচেয়ে বড় উৎস সূর্যের আলো। সূর্যের আলো যখন ত্বকের উপর পড়ে তখন আমাদের শরীরে ভিটামিন-ডি তৈরি হয়।

১৫. কতোক্ষণ সূর্যের আলোতে থাকব প্রতিদিন? কখন?
উত্তর : দিনে অন্তত ১০-১৫ মিনিট সূর্যের আলোতে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়। মধ্যদুপুরে সূর্য যখন প্রখর হয়ে ওঠে তখন রোদের আলো শরীরে লাগানো ভালো। তবে সামাজিক দূরত্ব যাতে বিঘ্নিত না হয়, সে ব্যাপারটিও খেয়াল রাখতে হবে। নিজের বারান্দা, ছাদ বা বাগান বেছে নেয়া যেতে পারে।

১৬. কোনো খাবারে ভিটামিন-ডি থাকে না?
উত্তর : থাকে। যেমন : মাছের তেল, কলিজা, মাশরুম, মাংস, ডিম, দুধ ইত্যাদিতে।

১৭. ভিটামিন-ডি সাপ্লিমেন্ট নেয়া যাবে?
উত্তর : চিকিৎসকের পরামর্শে দৈনিক ৪০০ ইন্টারন্যাশনাল ইউনিট খাওয়া যেতে পারে। তবে নিজের ইচ্ছেমতো বেশি ডোজে খেলে কিডনি, হৃদপিণ্ড এবং হাড়ের বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে।

১৮. পানি খাবার ব্যাপারে কোনো পরামর্শ?
উত্তর : দিনে অন্তত ৮-১০ গ্লাস পানি অবশ্যই পান করতে হবে। কুসুম গরম পানি হলে ভালো হয়। পর্যাপ্ত পানি পান না করলে শরীরের নানা ক্ষতি হয়।

১৯. কীভাবে বুঝব পর্যাপ্ত পানি খাচ্ছি কি না?
উত্তর : প্রস্রাবের রঙ গাঢ় হলুদ হলে বুঝে নিতে হবে পর্যাপ্ত পানি পাচ্ছে না শরীর।

২০. কোন কোন খাবার পরিহার করতে হবে সুস্থ থাকতে চাইলে?
উত্তর : চিনি, চর্বিযুক্ত খাবার, অতিরিক্ত লবণ, ফাস্ট ফুড, প্রক্রিয়াজাত খাবার, বোতলজাত কোমল পানীয়, কৃত্রিম জুস, কেইক, পেস্ট্রি ইত্যাদি।

২১. দিনে কতোটুকু লবণ খাওয়া যাবে?
উত্তর : ১ চা চামচের কম।

২২. খুসখুসে কাশি বা গলাব্যথা থাকলে বাসায় কী খেতে পারি?
উত্তর : মধু,লেবু-আদা-মধুমিশ্রিত চা, মুরগির গরম স্যুপ ইত্যাদি খেতে পারেন। গলা ব্যথার জন্যে লবণপানি দিয়ে কুলি করা যেতে পারে। চিকিৎসকের পরামর্শে ওষুধ খাওয়া যেতে পারে৷

Written by Dr.Maruf raihan khan, Basundhara covid hospital (সংগৃহীত)


Translate »