ধর্ষণের প্রতিবাদে সিলেটের মেয়র, কাউন্সিলরদের পদযাত্রা

সেপ্টেম্বর ২৭ ২০২০, ১৭:০২

Spread the love

সিলেটের মুরারি চাঁদ (এমসি) কলেজের ছাত্রাবাস এলাকায় গণধ*র্ষ ণের ঘটনায় সিলেটে পু’লিশ কমিশনার কার্যালয় অ’ভিযুখে পদযাত্রা করেছেন সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। পরে তিনি পু’লিশ কমিশনারের সঙ্গে বৈঠক করে ঘটনাকারী ধর্ষকদের গ্রে’প্তার ও দৃষ্টান্তমুলক শা’স্তির দাবি জানান।

সিলেট সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মক’র্তা আব্দুল আব্দুল আলীম শাহ জানিয়েছেন, এমসি কলেজের ক্যাম্পাসে গৃহবধু ধ*র্ষ ণের প্রতিবাদে দুপুরে নগর ভবন থেকে পদযাত্রা শুরু করেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও কাউন্সিলররা। এ সময় তারা উপশহরে মেট্রোপলিটন পু’লিশ কমিশনার কার্যালয়ে গিয়ে পু’লিশ কমিশনার গো’লাম কিবরিয়ার কাছে ধর্ষকদের গ্রে’প্তার ও শা’স্তি দাবি করেন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় স্বামীর সঙ্গে এমসি কলেজে ঘুরতে এসেছিলেন ওই তরুণী। এ সময় কলেজ ক্যাম্পাস থেকে মহানগর ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী তাদের জো’রপূর্বক কলেজের ছাত্রবাসে নিয়ে যায়। সেখানে একটি কক্ষে স্বামীকে আ’ট’কে রেখে তরুণীকে গণধ*র্ষ ণ করে তারা। রাত ১১টায় শাহপরাণ থা’না পু’লিশ তাদের উ’দ্ধার করে। বর্তমানে ওই তরুণী সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লের ওসিসিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় ছয় জনের নামোল্লেখসহ অ’জ্ঞাত আরও তিনজনকে আ’সামি করে শনিবার সকালে সিলেট মহানগর পু’লিশের শাহপরান থা’নায় মা’মলা করেছিলেন ধ*র্ষ ণের শিকার গৃহবধূর স্বামী।

মা’মলার আ’সামিরা হলেন- এম সাইফুর রহমান, শাহ মাহবুবুর রহমান রনি, তারেকুল ইস’লাম তারেক, অর্জুন লঙ্কর, রবিউল হাসান ও মাহফুজুর রহমান মাসুম। এদের মধ্যে চারজন ওই কলেজের শিক্ষার্থী। এছাড়া আরও তিন জনকে অ’জ্ঞাত আ’সামি হিসেবে দেখানো হয়েছে।

ইতিমধ্যে গণধ*র্ষ ণের ঘটনায় প্রধান আ’সামি সাইফুর রহমান ও মা’মলার চার নম্বর আ’সামি অর্জুন লস্করকেও গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ। এনিয়ে আ’লোচিত এই গণধ*র্ষ ণ মা’মলার দুই আ’সামি গ্রে’ফতার হলেন। বাকিদের গ্রে’ফতারে পু’লিশ অ’ভিযান চালাচ্ছে।

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »