এক হাজার সরকারি কর্মকর্তাকে খিচুড়ি রান্না শিখতে বা অভিজ্ঞতা অর্জন করতে বিদেশে পাঠানোর প্রস্তাব করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)

খিচুড়ি রান্না এবং পরিবেশন কৌশল শিখতে বিদেশ যাবেন কর্মকর্তারা

সেপ্টেম্বর ১৫ ২০২০, ১৫:০৭

Spread the love

আজকের ঝলক ‍নিউজ :

খিচুড়ি রান্না ও পরিবেশন শিখতে বিদেশ যাচ্ছেন বেশ কিছু কর্মকর্তা। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্কুল ফিডিং কার্যক্রমের আওতায় এসব কর্মকর্তারা বিদেশ সফর করবেন বলে জানা গেছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) স্কুল ফিডিং কার্যক্রমের প্রকল্প পরিচালক মো. রুহুল আমিন এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, এশিয়ার বিভিন্ন দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয় কীভাবে খিচুড়ি রান্না করা হয়, এর পরিবেশ ও পরিবেশন দেখতে এই প্রকল্পের আওতায় বেশ কিছু কর্মকর্তা বিদেশ সফর করবেন। কবে কতজন বিদেশ সফর করবেন সে বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

আরও জানা গেছে, চলতি বছরের ডিসেম্বরে এ প্রজেক্টের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। জানুয়ারিতে নতুন প্রজেক্ট শুরু হবে। সেটাতে যেসব কর্মকর্তা নতুন যুক্ত হবে তাদের অভিজ্ঞতা অর্জনে ভারত, ব্রাজিল, সাউথ আফ্রিকা, থাইল্যান্ড ভ্রমণ করানো হবে।

প্রকল্পের দায়িত্বরত কর্মকর্তারা জানান, এক হাজার সরকারি কর্মকর্তাকে খিচুড়ি রান্না শিখতে বা অভিজ্ঞতা অর্জন করতে বিদেশে পাঠানোর প্রস্তাব করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)। পরিকল্পনা কমিশন থেকে এর অনুমোদন পাওয়ার চেষ্টা করছে অধিদফতর। স্কুল ফিডিং কর্মসূচির আওতায় প্রশিক্ষণের জন্য তাদেরকে বিদেশ পাঠানো হবে। জনগণের টাকা খরচ করে এ ধরনের সফরের যৌক্তিকতা নিয়ে ইতোমধ্যে প্রশ্ন উঠেছে।

তবে এক হাজার সংখ্যাটি সঠিক নয় বলে জানিয়েছেন প্রকল্প পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) রুহুল আমিন। তিনি বলেন, ‘বড়জোর ৮-১০ জন হতে পারে। তবে এটি এখনও পাস হয়নি।’তার মতে, এর জন্য দুটি ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। দেশে ১০ হাজার জনের প্রশিক্ষণের জন্য বরাদ্দ রয়েছে ১০ কোটি টাকা। আর বিদেশের জন্য বরাদ্দ ৫ কোটি ।

জানা গেছে, ডিপিইর পক্ষ থেকে প্রাথমিকভাবে বিদেশ যাত্রার জন্য পাঁচ কোটি টাকা চাওয়া হয়েছে। এছাড়া দেশেই প্রশিক্ষণের জন্য চাওয়া হয়েছে আরও ১০ কোটি টাকা। প্রস্তাবিত এই রান্না করা খাবার বিতরণ কর্মসূচির জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ১৯ হাজার ২৮৩ কোটি টাকা। এর আওতায় পাঁচ বছর ধরে প্রায় এক কোটি ৪৮ লাখ শিক্ষার্থীকে পুষ্টিকর বিস্কুট ও রান্না করা খিচুড়ি দেয়া হবে। ৫০৯টি উপজেলার শিক্ষার্থীরা এ খাবার পাবে।


Translate »