‘সুশান্তের দেহে আঘাতের কো’নো চিহ্ন নেই’

অক্টোবর ০৪ ২০২০, ০১:৫২

Spread the love

বলি’উড অভিনেতা সু’শান্ত সিং রাজপুতের বিষক্রিয়ায় মৃ’ত্যু বা কেউ অভিনে’তাকে শ্বাসরোধ করে খু’ন করেছে— এই স’ম্ভাবনা উড়ি’য়ে দিয়েছে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকে’র দল। মূলত সুশান্তের পরি’বার এবং তাদের আইনজী’বীই এই অভিযো’গ তুলেছি’লেন। ফাঁসের দাগ ছা’ড়া আর কোনো আ’ঘাতের চিহ্ন মে’লেনি সুশান্ত সিং রা’জপুতের দেহে। ধস্তা’ধস্তিরও কো’নো প্রমাণ নেই।

শনি’বার একথা জানা’লেন অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটি’উট অব মেডিক্যা’ল সায়েন্স (এইমস)’র বিশেষ’জ্ঞ দলের প্রধান সু’ধীর গুপ্ত। মানে, সুশান্ত মৃত্যু তদন্তে খুনের সম্ভাবনাকে পুরোপুরি নাকচ করে দিলো এইমস।
সংবাদ’সংস্থা এএ’নআ’ইকে এইমসের ফ’রেন্সিক প্রধান বলেন, ‘ফাঁ’স ছাড়া সুশান্তের দে’হে কোনও আ’ঘাতের চিহ্ন নেই। মৃতের শ’রীর এবং পোশাকে ল’ড়াই বা ধস্তাধস্তির কোনও নির্দ’শন নেই। ’ ফরেন্সি’ক বিশেষ’জ্ঞদের মতে, কাউ’কে খুন করা হ’লে সাধারণত তিনি শেষবেলার বাঁচার প্রাণপণ চেষ্টা করেন। তার জেরে ধস্তাধস্তি হয়। স্বভাবতই সেই প্রমাণ থেকে যায়। কিন্তু সু’শান্তের ক্ষে’ত্রে সেরকম কো’নো নির্দশন মে’লেনি।

চিকিৎ’সক সুধীর গুপ্ত বলে’ন, ‘আমাদের চূড়া’ন্ত রিপোর্ট জমা দিয়ে’ছি। এটা ফাঁস দেওয়া’র ঘটনা এবং আ’ত্মহত্যার জেরে মৃত্যু হয়েছে। ’

গত ১৪ জুন বান্দ্রা’র ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধা’র হয় সুশা’ন্ত সিং রাজপু’তের মরদেহ। ম’য়নাতদন্তের রিপো’র্টে প্রাথমিক’ভাবে মু’ম্বাই পুলিশ জা’নায়, গলায় ফাঁস লা’গার ফলে দ’মবন্ধ হয়ে মৃত্যু হ’য়েছে অ’ভিনেতার। পাশা’পাশি এও বলা হয় যে সুশা’ন্ত আত্মহত্যা করে’ছেন। যদিও একথা মান’তে রাজি ছিলে’ন না অভিনেতা’র পরিবার এবং অনু’রাগীরা। বলিউডের অ’নেক তারকাও সু’শান্তের মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। অভি’নেতার রহস্যজ’নক মৃত্যু নিয়ে সো’শ্যাল মিডিয়া থেকে বিভি’ন্ন শহরের জনপদে গ’র্জে ওঠেন প্রতিবাদীরা। দেশজুড়ে শুরু হয় বিক্ষোভ। সে সময় বিভিন্ন অভিযোগ এনেছিল রাজপুত পরিবারও।
এরপর মুম্বাই ও বিহা’র পুলিশের ঠান্ডা লড়াই এবং বিস্তর জ’লঘোলার পর তদ’ন্তভার যায় সিবি’আইয়ের হাতে। পাশাপা’শি সুশান্তের ময়’নাতদন্তের রিপোর্ট খতিয়ে দেখ’তে তৈরি হয় দিল্লি এইমসের চা’রজন ফরেনসিক বিশে’ষজ্ঞের দল। এই টিমে’র লিডার ছিলেন এইমসের দরে’ন্সিক মেডিসিন বি’ভাগের প্রধান ডক্টর সুধীর গু’প্তা। এর আগেও সি’বিআইয়ের সঙ্গে এ’কাধিক হাই-প্রোফাইল কে’সে কাজ করেছেন তিনি।

সূত্রের খবর, এইম’সের প্যানেল তাদের ছানবিন শেষ ক’রেছে এবং ফাইল জমা দিয়েছে’ সিবিআই’র হা’তে। অন্যদি’কে শোনা গেছে, মুম্বাই পুলিশের পথে হেঁ’টেই আত্মহ’ত্যায় প্ররোচনা এই সম্ভা’বনায় সুশান্ত সিং রাজপুতে’র মৃত্যুর তদন্ত এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে সি’বিআই।

মৃত্যুর পর মুম্বা’ইয়ের কুপার হাসপাতালে নি’য়ে যাওয়া হয়েছিল সুশা’ন্তকে। সেখানেই হয় তার ময়’নাতদন্ত। তাদের রি’পোর্টের সঙ্গে এইমসের চিকি’ৎসকদের প্যানেল সহ’মত পোষণ করেছে’ বলে শোনা গেছে। কুপার হা’সপাতাল ময়নাত’দন্তের পর জানি’য়েছিল যে গলায় ফাঁ’স লাগার ফলে দম’বন্ধ হয়েই মৃত্যু হয়েছে’ সুশান্তের। পারিপা’র্শ্বিক বিভিন্ন তথ্য প্রমা’ণের ভিত্তি’তেও এই’মসের চিকি’ৎসকমণ্ডলী জানি’য়েছে যে সুশা’ন্তের মৃত্যু আ’সলে আত্ম’হত্যা, খুন নয়।

সিবিআ’ইয়ের পক্ষ থে’কে একা’ধিকবার খতি’য়ে দেখা হয়েছে’ ক্রাইম সিন। ঘ’টনার পুনর্নি’র্মাণ করে সম’স্ত সম্ভা’বনা খুঁ’টিয়ে দেখেছে’ন সিবি’আই’র তদন্ত’কারীরা। প্রয়াত অভি’নেতার বা’ন্ধবী রিয়া চক্র’বর্তীসহ ৫৭ দি’নের মধ্যে কম’পক্ষে ২০ জনকে জেরা করে’ছে সিবিআই। ল্যাপটপ, হার্ড ড্রাই’ভ, মোবাইল ফোন, ডিজি’টাল ক্যামেরা এইসব জিনি’সও বাজেয়া’প্ত করেছেন সি’বিআই কর্তার। তবে সবকিছু খতিয়ে দেখেও সুশান্তকে কেউ খুন করেছেন এমন প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

সুশান্তের মৃ’ত্যু মামলায় আ’পাতত ভারতীয় দ’ণ্ডবিধির ৩০২ ধারা যোগ করা হ’চ্ছে না বলে সূত্রের খবর। একাধিক সূত্র’কে উদ্ধৃত করে এনডি’টিভি বলেছে, তদন্তে সব’দিক খোলা আছে। অন্য কিছুর যদি প্র’মাণ মেলে, তাহলে ৩০২ ধা’রা (খুন) যোগ করা হ’বে। কিন্তু তদন্তে’র ৪৫ দিনে সেরকম কোনও প্রমাণ মে’লেনি।

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »