খাটো স্ত্রীর সংসারই সবচেয়ে সুখের হয় বলছে গবেষণা

মে ১০ ২০২০, ২১:৩৮

Spread the love

সিউলের কনকুক ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক এবং গবেষক কিটাই সনের গবেষণাটি করা হয়েছে ৭৮৫০ নারীর ওপরে। দেখা গেছে সুখী দাম্পত্যের সঙ্গে স্বামীর উচ্চতার সঙ্গে সম্পর্ক আছে।  সেখানে দেখা যায় স্বামী লম্বা ও স্ত্রী ঘাটো সে ই সংসার সচচেয়ে সুখের হয় । 

সাধারণত বিয়ের সময় সকল পুরুষই তার সমান উচ্চতার বা তার থেকে সামান্য কম উচ্চতার কোনো মেয়েকে খোঁজে। কিন্তু গবেষকদের মতে সমান উচ্চতা নয়, বরং তুলনায় বেশ কিছুটা খাটো অর্থাত্‍ বেঁটে মেয়েরাই স্ত্রী হিসেবে অনেক ভালো। স্বামী লম্বা আর স্ত্রী তুলনামূলক ভাবে একটু খাটো হলেই নাকি সংসার সুখের হয়। সম্প্রতি এই বিষয়ে একটি সমীক্ষা চালিয়েছিলেন, সিউলের কনকুক ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক এবং গবেষক কিটাই সন। ৭৮৫০ জন নারীর উপর চালানো হয় এই সমীক্ষাটি। এতে দেখার চেষ্টা করা হয়েছিল যে খাটো না লম্বা কোন স্ত্রীরা সংসার বেশি সুখী রাখতে পারে।

সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী মহিলাদের মধ্যে যাদের স্বামীর উচ্চতা তাদের চেয়ে তুলনামূলকভাবে বেশ খানিকটা বেশি তারা অন্যদের চাইতে অনেক বেশি সুখী বলে জানিয়েছেন। গবেষকদের মতে লম্বা পুরুষরা শক্তিশালী হয়, ফলে তাদের সাথে নারীরা তাদের উচ্চতায় মুগ্ধ হয় এবং নিজেদের নিরাপদ বোধ করে। গবেষণায় আরও দেখা গেছে, উচ্চতা বেশি হওয়ার কারণে দেখতে স্মার্ট লাগে, আত্মবিশ্বাসী লাগে। ফলে তাদের নিয়ে কখনোই নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে না নারীরা। ফলে দাম্পত্যে জটিলতা কম থাকে। গবেষকদের মতে জীবনসঙ্গী নির্বাচনের ক্ষেত্রে অর্থ, সম্মান এবং বিশ্বাস কিছুই না দেখে উচ্চতা দেখা উচিত। তাহলেই থাকবে সংসারে সুখ শান্তি।

তার মতে, একজন নারীর তুলনায় পুরুষের ১.০৯ গুন বেশি লম্বা হওয়া জরুরি। উদাহরণ দিলে বুঝতে সুবিধা হতে পারে। ভিক্টোরিয়া বেকহামের চাইতে ডেভিড বেকহামের উচ্চতা ১.০৯গুন বেশি। এরকম একটি গবেষণা প্রমাণ করেছে

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »