করোনা বিষয়ক কথন --সারমিন

করোনা মহান আল্লাহ্পাকের গজব !!

সেপ্টেম্বর ১২ ২০২০, ০৯:৫৩

Spread the love

করোনা মহান আল্লাহ্পাকের গজব” আর যারা বিশ্বাস করেন আল্লাহ্ তার পাপী বান্দাদের প্রতি এটা নাযিল করেন আমার এই লেখাটা সেই সব বুদ্ধিজীবী বা বুদ্ধিমতীদের জন্য। দয়া করে একটু পড়বেন তবে ভালো না লাগলে skip করতে পারেন।

এবার আসল কথায় আসি আপনি যদি প্রকৃত মুসলমানই হতেন তবে শিক্ষিত হয়েও কখনো হটকারী বা নির্বুদ্ধিতার পরিচয় দিতেন না ইসলাম সম্পর্কে। আর যার যে ব্যাপারে ধারনা কম সে ব্যাপারে অপরকে কু- শিক্ষা না দেয়াই উত্তম। মহান আল্লাহ্ যুগে যুগে অসংখ্য গজব নাযিল করেছেন তার বান্দাদের প্রতি,এমন কি নবী রাসুলদের আমল থেকে চলে আসছিলো এইগুলো তারা পর্যন্ত রেহাই পান নি এর কবল থেকে। আল্লাহ্ পাকের গজব গুলোর মধ্যে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন রকমের ঝড়- অতিরিক্ত প্লাবন, বিভিন্ন পোকামাকড় এর উপদ্রব এমন কি সংক্রমন ব্যাধি অন্যতম। এখন প্রশ্ন গজব কি আল্লাহ্ তার পাপী বান্দাদের শুধু মাত্র ধ্বংশ বা শাস্তির জন্য নাযিল করেন? করোনা কি সেই রোগ বা গজব যাই বলি না কেন সেটা কেবল পাপাচারে লিপ্ত বান্দাদের দেয়া হয়?
আচ্ছা মহান আল্লাহ্পাকের সাথে সব চেয়ে বেশি কথা হতো কোন নবীর জানেন নিশ্চই।তিনি হলেন হযরত ঈসা আঃ। তিনি যখন তখন আল্লাহর কাছে বায়না ধরতেন তার সাথে কথা বলার। মহান আল্লাহ্ পাক ও তার বায়নায় সারা দিতেন যখন তখন। একদিন তিনি মহান আল্লাহ্পাকের কাছে জানতে চাইলেন মহামারি সম্পর্কে। তার প্রশ্ন ছিলো এইটা যে কেন মহামারি শুধু কাফিরদের উপর নাযিল হয় না? কেন মহামারি আল্লাহ্ পাকের অনেক ঈমানদার বান্দাও কষ্ট পায়, মারা যায়?এটা তো তাদের প্রতি একপ্রকারের অবিচার। ঠিক সেই মুহূর্তে মহান আল্লাহপাকের নির্দশে কিছু পিপড়া হযরত ঈসা আঃ এর পায়ের কাছে এলো এবং তাদের ভিতর থেকে একটি পিপড়া তার পায়ে কামড় বসালো তখন হযরত ঈসা আঃ রেগে গিয়ে তার পা দিয়ে পুরো পিপড়া দলটাকে পিষ্ট করে দিলেন তখন মহান আল্লাহ্ পাকের গায়েবী আওয়াজ আসলো তিনি বললেন হে ঈশা তুমি কি করলে? তোমাকে তো একটি মাত্র পিপড়া কামড় দিয়েছিলো তবে তুমি কেন পুরো পালটাকে নষ্ট করে দিলে? তখন মহান আল্লাহ্পাক খুব সুন্দর হযরত ঈসা আঃ কে বুঝালেন যে মহামারী তে তার কোন মোমীন বান্দা আক্রান্ত হলে তিনি এর দ্বারা তার পূর্বের সমস্ত গুনা মাফ করে দিবেন আর মারা গেলে তার জন্য রয়েছে শহীদি মৃত্যুর সম্মাননা। একবার ভেবে দেখুনতো এই সুযোগটা মহান আল্লাহ্ পাক কাদের দিচ্ছেন?


আচ্ছা এই যে আপনারা যারা নেতিবাচক চিন্তাধারার মানুষ আপনারা কি জানেন ১ দিনের বাচ্চার ও RTPCR -এ কোভিড পজিটিভ পাওয়া গিয়েছে। আমার পরিচিত এক জন শুভাকাঙ্খীর তো ১ বছরের বাচ্চার পজিটিভ হলো কয়েকদিন আগে। সেদিন রিপোর্ট দেখতে গিয়ে দেখলাম ৮ মাসের বাচ্চার করোনা পজেটিভ। আচ্ছা বাচ্চা মানে তো ফেরেশতা। ওরা তো নিষ্পাপ, পবিত্র তবে এদের ক্ষেত্রে আপনারা কি বলবেন?
জ্বর আসলো, সাথে গলা ব্যাথা বা সর্দি বা গা ব্যাথার মত কয়েকটা উপস্বর্গ দেখা দিলো ঘাবটি মেরে ঘরের মধ্যে বসে রইলেন আর করোনা ধরা পরার ভয়ে টেস্ট না করিয়ে নীরবে সকলকে সংক্রমিত করে গেলেন। আর মুখে বড় বড় বুলি আওরালেন যে এটা গজব, পাপী বান্দাদের উপর নাযিল হয়। আমাদের কিছু হবে না।


ভাইরে ভাই বিশ্বাস করেন এই গুলা নির্বুদ্ধিতা ছাড়া আর কিছু না। যদি হাদিস দিয়ে ই বুঝাতে হয় তবে শুনুন আগুনে পুরে পুরে যেমন সোনা খাটি হয় তেমনি মহান আল্লাহ্ তার প্রিয় বান্দারের প্রতি বিপদ, আপদ, রোগ, শোক, এবং বিভিন্ন বালা মুসিবত দিয়ে পরীক্ষা নেন। যেটা বোঝার ক্ষমতা আপনার বা আমার নেই।
তার পরেও একটু ইতিবাচক হোন ।

ইসরাত সারমিন


Translate »