ঝালকাঠি-নলছিটিবাসীর আলোকবর্তিকা জুলফিকার আলী ভুট্টো

মে ২৯ ২০২০, ১১:৫০

Spread the love

ঝালকাঠি-নলছিটিবাসীর আলোকবর্তিকা জুলফিকার আলী ভুট্টো। খলিলুর রহমান

উদয়ের পথে শুনি কার বানী ভয় নাই ওরে ভয় নাই,
নিঃশেষে প্রাণ যে করিবে দান ক্ষয় নাই তার ক্ষয় নাই।

আজ ২৯ শে মে। ঠিক আজ থেকে ২০ বছর পূর্বে এই দিনে ঝালকাঠি ২ আসনের দুই বারের (১৯৮৬-১৯৯০ (জুন ১৯৯৬- ২৯ শে মে ২০০০) নির্বাচিত সংসদ সদস্য জননেতা মরহুম আলহাজ্ব জুলফিকার আলী ভুট্টো লক্ষ লক্ষ ভক্তদের শোক সাগরে ভাসিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে। এছাড়া তিনি ১৯৮৮-১৯৯0 পর্যন্ত ঝালকাঠি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্বও পালন করেন।

জন্ম: জুলফিকার আলী ভূট্টো ১ লা জুলাই ১৯৫৪ ঝালকাঠী জেলার, নলছিটি উপজেলাধীন মোল্লারহাট ইউনিয়নের সম্ভ্রান্ত মোল্লা বংশে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতা আব্দুল মালেক মোল্লাও প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক ছিলেন বলে জানা যায়। তাদের ৫ ভাই ও ২ বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন ৪র্থ। তিনিসহ তারা ৪ভাই রাজ্জাক মোল্লা, চুন্নু মোল্লা, হারুন মোল্লা মৃত্যুবরণ করেছেন। ছোট ভাই মজিবুর রহমান মোল্লা থাকেন বরিশাল সি এন্ড বি রোডের জননী মঞ্জিলে। মৃত্যুকালে জুলফিকার আলী ভুট্টো এক কন্যা ও এক ছেলে রেখে গেছেন। মেয়ে সুমাইয়া ভূট্টো এবং ছেলে নাফিউ ভূট্টো। মেয়ে সুমাইয়া ভূট্টো ঢাকার স্কলাটিশকা স্কুলে পড়াশোনা শেষ করে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছে। ছেলে নাফিউ ভূট্টোও গ্র্যাজুয়েশন ডিগ্রি সম্পন্ন করেছে।

শিক্ষা জীবন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকাকালীন তিনি প্রয়াত রাষ্ট্রপতি হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদের হাত ধরে রাজনীতিতে পা রাখেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত জাতীয় পার্টির রাজনীতির সঙ্গেই সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন তিনি। জাপা নেতা আনওয়ার হোসেন মঞ্জু, নাজিউর রহমান মঞ্জুসহ জনপ্রিয় মন্ত্রী, এমপি ও জাপা নেতাদের সাথে তার ঘনিষ্টতা ছিলো ঈর্ষণীয়। এছাড়া তিনি সকল রাজনৈতিক দলের নেতা ও অনুসারীদের কাছেও প্রিয় ভুট্টো হিসেবে সমাদৃত ছিলেন, এখনো আছেন এবং ভবিষ্যতেও থাকবেন।

মানব সেবায় অবদান: জুলফিকার আলী ভুট্টো একটি নাম, একটি ইতিহাস। এ যেনো তৎকালীন অবহেলিত ঝালকাঠি নলছিটির এক স্বর্গীয় দূত। তিনি অবহেলিত নলছিটি উপজেলায় যে উন্নয়ন তৎকালীন সময়ে করেছেন সেটা বর্তমান সময়েও অনেক উপজেলাতে দেখা যায় না। তিনি তার নির্বাচনী এলাকা নলছিটি ঝালকাঠিতে রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভার্ট, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, ব্যাংক, ডাকবাংলো,এলজিইডি অফিস, ক্লিনিক, পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র সহ অসংখ্য প্রতিষ্ঠানের স্থপতি।

২০০০ সালের ২৯ শে মে দুপুরে রাজধানীর জাতীয় হৃদ রোগ ইন্সটিটিউটে মৃত্যুবরণ করেন জুলফিকার আলী ভূট্টো। তিনি যখন মারা যান তখন নলছিটি ঝালকাঠির মানুষের আর্তনাদে আকাশ বাতাস ভারি হয়ে উঠেছিলো। কেহ বিশ্বাসই করতে পারছিলো না জুলফিকার আলী ভুট্টো আর নেই। কারন তিনি দল মত এবং শত্রু নির্বিশেষে সকলকে মুহূর্তেই হৃদয়ে স্থান করে নিতে পারতেন।
তার মৃত্যুর সংবাদ তার সংসদীয় এলাকার মানুষের জন্য ছিলো অত্যন্ত বেদনাদায়ক। ততকালীন সময়ে তার মৃতদেহ হেলিকপ্টার যোগে নলছিটির চায়না মাঠে নামানো হলে হাজারো জনতা আবেগতাড়িত হয়ে পড়েছিলেন। নলছিটি থেকে মোল্লারহাট পর্যন্ত রাস্তায় মানুষের শোকার্ত মানুষের ঢল সামলে তার কফিন মোল্লারহাট কলেজ মাঠে পেীঁছাতে সময় লেগেছিলো প্রায় ৩ ঘন্টা। তাঁর জানাজায় বরিশাল বিভাগের রাজনৈতিক, সামাজিক ও সুশীল সমাজের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। তার মৃত্যুর পর জাতীয় সংসদে শোক প্রস্তাবে বক্তব্য দিতে গিয়ে ততকালীন এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন আমরা একজন সদা হাস্যজ্বল সংসদ সদস্যকে হারালাম যিনি সকলের কাছে খুব পছন্দের ছিলেন। এটি সংসদের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি। তাকে মোল্লারহাট জেড এ ভূট্টো ডিগ্রির কলেজের মসজিদের পাশেই তাকে সমাহিত করা হয়।

তার মৃত্যুর পর তার সহধর্মিনী সাবেক সংসদ সদস্য মিসেস ইসরাত সুলতানা ইলেন ভূট্টো নলছিটি ঝালকাঠি ২ আসনের উপ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য বর্তমান ঝালকাঠি ২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আমির হোসেন আমুর কাছে অল্প ভোটে হেরে যান। পরবর্তীতে ২০০১ সালের নির্বাচনে তিনি বিএনপির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে বিপুল ভোটে পরাজিত করেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী আমির হোসেন আমুকে।

এমন একজন জনপ্রিয় নেতা হারিয়ে আজও নলছিটি ঝালকাঠির মানুষের আর্তনাদে আকাশ বাতাস ভারি হয়।

সকলের নিকট আকুল আবেদন আপনারা সকলেই এই মহান নেতার জন্য মাগফিরাত কামনা করবেন। আল্লাহ্ যেনো তার জীবনের যাবতীয় গোনাহ সমূহ ক্ষমা করে জান্নাতুল ফিরদাউসের মেহমান হিসেবে কবুল করেন। আমীন।

লেখক:
মো: খলিলুর রহমান।
বিবিএস, মার্কেটিং, এমবিএস মার্কেটিং বিভাগ, সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ বরিশাল।
ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত।
সাংবাদিক: আজকের ঝলক অনলাইন নিউজ https://www.ajkerjholok.com
ইমেইল:khaliljhalakathi@gmail.com ajkerjholok@gmail.com

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »