খুলনায় রোগীর স্বজনদের হামলায় নিহত ডা: রাকিবের হত্যাকারী ৫ সদস্য গ্রেফতার

জুন ১৮ ২০২০, ২০:০৪

Spread the love

খুলনায় রোগীর স্বজনদের হামলায় নিহত ডা: রাকিবের হত্যাকারী ৫ সদস্য গ্রেফতার

খুলনার গল্লামারীস্থ রাইসা ক্লিনিক এন্ড ডায়গনস্টিক এর পরিচালক ডা: আব্দুর রাকিব খানের (৬০) মৃত্যুর ঘটনায় দায়ের করা মামলায় প্রধান আসামিসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গতকাল বুধবার রাতে গাজীপুরের টঙ্গী এলাকায় এবং আজ বৃহসপতিবার সকালে খুলনার রূপসা এলকায় অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামিদের গ্রেফতার করে পুলিশ। আসামিদের মধ্যে মৃত: শিউলী বেগমের ভাই জমির (প্রধান আসামি), স্বামী আবুল আলী, ভাবি খাদিজা এবং চাচা গোলাম মোস্তফা রয়েছেন। এর আগে মঙ্গলবার (১৬ জুন) রাতে আব্দুর রহিম নামে একজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বুধবার (১৭জুন) দুপুরে নিহত ডাক্তার রাকিবের ছোট ভাই, খুলনা মডেল স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে খুলনা সদর থানায় ৪ জনের নামসহ অজ্ঞাত আরও ১০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

খুলনা মট্রপোলিটন পুলিশ (কে.এম.পি) কমিশনার খন্দকার লুৎফর কবির জানান, এজহার ভুক্ত ৪ জন ও অজ্ঞাত একজন সহ মোট ৫ জন কে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং সিসি টিভির ফুটেজ দেখে বাকিদেরও শনাক্তের কাজ চলছে। আমরা খুবই দ্রুত বাকিদেরও ধরতে সক্ষম হবো।

উল্লেখ্য, গত ১৪ জুন সিজারের জন্য নগরীর মোহাম্মদ নগরের পল্লবী সড়কের বাসিন্দা আবুল আলীর স্ত্রী শিউলী বেগমকে রাইসা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। ওই দিন বিকেল ৫টায় তার অপারেশন করা হয়। অপারেশনের পর প্রথম দিকে বাচ্চা ও মা দুজনই সুস্থ ছিলেন।

পরে শিউলীর রক্তক্ষরণ শুরু হলে ১৫ জুন সকালে তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানেও চিকিৎসকরা রোগীর রক্তক্ষরণ বন্ধ করতে না পেরে তাকে ঢাকায় স্থানান্তর করেন। ১৫ জুন রাতে ঢাকায় নেওয়ার পথে শিউলী বেগম মারা যান ।

ওই ঘটনার জেরে ১৫ জুন রাত পৌনে ৯টার দিকে শিউলীর আত্মীয়-স্বজনরা রাইসা ক্লিনিকে গিয়ে ক্লিনিকের মালিক ডা. রকিবকে মারধর করেন। এতে রকিবের মাথার পেছনে জখম হয়। তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ডা. রকিবের মৃত্যু হয়।


Translate »