নিঝুম দ্বীপ সামুদ্রিক সংরক্ষিত এলাকা ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা খসড়া চূড়ান্তকরণ সভা অনুষ্ঠিত

সেপ্টেম্বর ১৮ ২০২০, ০৭:০৬

Spread the love

আজকের ঝলক :

নিজস্ব সংবাদদাতা : নিঝুম দ্বীপ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সামুদ্রিক সংরক্ষিত এলাকা (এমপিএ) ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা খসড়া চূড়ান্তকরণ সভা ১৪ সেপ্টেম্বর, সোমবার সকাল ১১ টায় মৎস্য অধিদপ্তরের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ। সভার শুরুতেই নিঝুম দ্বীপ সামুদ্রিক সংরক্ষিত এলাকা ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনার (২০২০-২০৩৪) বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বক্তব্য উপস্থাপন করেন ওর্য়াল্ডফিশ বাংলাদেশের ইকোফিশ -২ প্রকল্পের বিজ্ঞানী ড.মো.নাহিদুজ্জামান।

# পরে অনলাইনে যুক্ত হয়ে আলোচনায় অংশনেন নৌ পুলিশের ডি আই জি, ভোলা ও পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক, নোয়াখালীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, বন বিভাগ, পরিবেশ অধিদপ্তর, আই ইউ সি এন, ডাব্লিউ সি এস এর প্রতিনিধিগণ। এতে সরাসরি আলোচনায় অংশ নেন মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয় ও মৎস্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তাগণ, নিঝুম দ্বীপ ইউ পি চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ নৌবাহিনী, কোস্ট গার্ড এবং জাতিসংঘ খাদ্য সংস্থার প্রতিনিধিগণ । সভায় আরো বক্তব্য রাখেন মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী শামস আফরোজ ও ওর্য়াল্ডফিশ বাংলাদেশের ইকোফিশ -২ প্রকল্পের টিম লিডার অধ্যাপক ড. মোঃ আব্দুল ওহাব।

# সভায় বক্তাগণ নিঝুম দ্বীপ সামুদ্রিক সংরক্ষিত এলাকা ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা খসড়াতে প্রস্তাবিত এলাকাসমূহের সীমানা সুনির্দিষ্টভাবে নির্ধারণ, স্থানীয় জনগোষ্ঠীর টেকসই জীবিকা নিশ্চিত করা ও তাদের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোর উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। অংশগ্রহণকারীগণ এমআর/ এমপিএ কার্যকরভাবে পরিচালনার জন্য সরকারী সংস্থা, এনজিও, গবেষণা প্রতিষ্ঠান এবং উন্নয়ন সহযোগীদের সমন্বিত প্রচেষ্টার আহবান জানান।
মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব (সুনীল অর্থনীতি) মো. তৌফিকুল আরিফ বলেন ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা ও বাস্তবায়ন একটি চলমান প্রক্রিয়া। সুতরাং ভবিষ্যতেও সরকার সকলের মতামত গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে পরিকল্পনাটি সংশোধন করবে। পরিশেষে মন্ত্রণালয়ের সচিব রওনক মাহমুদ স্টেকহোল্ডারদের প্রাসঙ্গিক মতামত সমূহকে যুক্ত করে সংশোধিত ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা শীঘ্রই মন্ত্রণালয়ে জমা দেওযার অনুরোধ করেন।

# ইউএসএআইডি অর্থায়িত ওর্য়াল্ডফিশ বাংলাদেশের ইকোফিশ, আইইউসিএন এবং ডাব্লুসিএসের সহায়তায় মৎস্য অধিদফতর নিঝুম দ্বীপ এমআর / এমপিএ পরিচালনার পরিকল্পনার খসড়া তৈরি করেছে। বাংলাদেশ সরকার ইলিশের বিচরণ ক্ষেত্র, অন্যান্য মাছ ও মেগাফুনা সংরক্ষণ ও টেকসই মাছ উৎপাদন এবং জেলেদের জীবনযাত্রার মানউন্নয়নের জন্য ২০১৯ সালে ৩,১৮৮ বর্গ কিমি আয়তনের অঞ্চলটিকে “নিঝুম দ্বীপ মেরিন রিজার্ভ” হিসাবে ঘোষণা করেছে।

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »