পন্যের জীবন চক্র

জীবন ও জীবন চক্র

মার্চ ২১ ২০২১, ১১:১০

Spread the love

জীবন ও জীবন চক্র

সাধারণভাবে একজন মানুষ বা কোন জন্তুর জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত গোটা জীবনের সময়ভিত্তিক যে বিভিন্ন অবস্থার সৃষ্টি হয় সেগুলোর সমষ্টিকে একত্রে জীবনচক্র বলে। এক্ষেত্রে জীবনের সময়কাল সৃষ্টিকর্ততা কর্তৃক নির্ধারিত থাকে এবং সময়ের পরিবর্তনে জীবন চক্রের বিভিন্ন স্তরের বৈশিষ্ট্য প্রকাশ পায়।

জীবনচক্র মূলত গোটা জীবনের সময়কাল বিবেচনা করে নির্ধারণ করা হয়। সেক্ষেত্রে দেখা যায় কারো জীবনচক্র কয়েক ঘন্টা, কয়েক মাস আবার কারো জীবনচক্র কয়েক বছর হতে পারে। যেমন মানুষের জীবনচক্র সাধারণত একশত বছর ধরে আবর্তিত হয়। অনেক সময় মানুষ বা জন্তু তার জীবনচক্র শেষ না করেই মৃত্যুবরণ করে।

এক্ষেত্রে এটিকে অসম্পূর্ণ জীবনচক্র বলা যেতে পারে। যাহোক জীবনচক্র ধারণা বুঝতে হলে মানুষের বিবেচনায় আনা যায়। মানুষের জীবনের বিভিন্ন পর্যায় যেমন-শৈশব, কৈশোর, তারুণ্য, যৌবন, পৌঢ়ত্ব ও বার্ধক্য অতিক্রম করে মানুষ একসময় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

পারিবারিক জীবনচক্রের স্বরূপ দেখানো হয়েছে যেখানে একজন যুবক বা যুবতী বিবাহিত জীবনে প্রবেশ করার পর একটি নির্দিষ্ট সময় শিশুবিহীনভাবে জীবন যাপন করে। পরবর্তীতে শিশুসহ জীবনের একটি স্তরে সন্তান-সন্ততিসহ মধ্য বয়স স্তরে, নির্ভরশীল সন্তান ব্যতীত মধ্যবয়স স্তরে এবং বিবাহিত বৃদ্ধ বয়স স্তরে একজন মানুষ পারিবারিক জীবনে অবস্থান করে থাকে। অপরপক্ষে অবিবাহিত যুবক বিয়ে না করে তার জীবনের সকল স্তর অতিক্রম করে অবিবাহিত বৃদ্ধ অবস্থায় পৌছুতে পারে।

ৃ৪

উপর্যুক্ত আলোচনা জীবনচক্র ধারণাকে সুস্পষ্ট করে যা মানুষ বা জীবজন্তু বা উদ্ভিদের জীবনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে ভোক্তা বা ক্রেতাদের চাহিদা ও রুচির দ্রæত পরিবর্তনের কারণে পন্য বা সেবার জীবনচক্রের আবর্তন পরিস্কারভাবে লক্ষ করা যায়। এর ফলে উৎপাদন প্রক্রিয়া, প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থাপনা, প্রবৃদ্ধি, পূর্ণতা, ক্ষয় এবং সবশেষে বিলীন প্রক্রিয়া সংঘটিত হয়। সুতরাং বলা যায়, জীবনচক্র ধারণা চিরন্তনভাবে বিভিন্ন রূপে আবর্তিত হতে থাকবে।

এমবিএ পড়ার ক্ষেত্রে মেজর বিষয় নেয়ার পরাপর্শ

 

https://www.youtube.com/watch?v=WGVjKqK_Rpw&list=RDMMWGVjKqK_Rpw&start_radio=1

 



আমাদের ফেসবুক পাতা




প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন







Translate »