পাঞ্জাবের মানুষ এর মধ্যে ধরে ফেলেছে ৩০ টন পঙ্গপাল!

কোনভাবেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না পঙ্গপাল

জুন ২৮ ২০২০, ১০:১৬

Spread the love

যেভাবে পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রণ করলো পাকিস্তানের পাঞ্জাবের রাজ্য সরকার

আজকের ঝলক নিউজ: অনলাইন ডেস্ক;

পাঞ্জাবে প্রবল আক্রমণ শুরু হয়েছে পঙ্গপালের। সরকার কোনভাবেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। কৃষকরা হাহাকার করছে। সরকারের প্রতি ক্ষোভ প্রদর্শন করছে। ফসল নষ্ট হচ্ছে। জরুরি অবস্থা জারি হলো, সেনাবাহিনী নামলো, চীন থেকে স্পেশাল হাঁস আনানো হলো পঙ্গপাল খাওয়ার জন্য। কিছুতেই কিছু হচ্ছে না। এই এক বিভীষিকাময় অবস্থা।

এমন সময় সরকার একটি দারুণ পরিকল্পনা নিয়ে হাজির হলো। ঘোষণা করে দিলো সরকার কৃষকদের কাছ থেকে পঙ্গপাল কিনে নিবে। প্রতি কেজি বিশ টাকা।

দিনের বেলা সূর্য যখন ওঠে তখন পঙ্গপাল ওড়াওড়ি করে। ধরা কঠিন। কিন্তু ভোরে সূর্য ওঠার আগে তারা নির্জিব হয়ে পড়ে থাকে। সেসময় ধরা কোনো ব্যাপার না। যে মানুষগুলো এতক্ষণ বিক্ষোভ করেছিলো তারা সবাই নেমে পড়লো পঙ্গপাল কালেকশনে।

ব্যাস! ছেলে-মেয়ে বুড়ো-যুবক (আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা) সবাই এখন ফসলের মাঠে। উদ্দেশ্য একটাই, পঙ্গপাল ধরতে হবে, সরকারের কাছে বিক্রি করতে হবে। দুই সপ্তাহের মধ্যে পঙ্গপাল হাওয়া। পাঞ্জাবের মানুষ এর মধ্যে ধরে ফেলেছে ৩০ টন পঙ্গপাল!

এর জন্য হয়তো সরকারের খরচ হয়েছে সর্বোচ্চ ৬ লক্ষ টাকা। মাত্র ছয় লক্ষ টাকায় পঙ্গপাল সমস্যা সমাধান করে ফেলেছে তারা। না এই ছয় লক্ষ টাকাও সরকারের খরচ হয়নি। সরকার এই তিরিশ টন ফড়িং বিক্রি করেছে তিনটি ফিড কারখানায়। যেখানে মুরগীর খাবার তৈরি হয়। তারা এই ফড়িং বা পঙ্গপাল থেকে মুরগীর খাবার তৈরি করবে।

সম্মমিলিত প্রচেষ্টায় যেকোনো ক্ষেত্রেই সফলতা অর্জন করা সম্ভব যদি সকলে কাজটিকে গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করে।

(অনলাইন থেকে সংগৃহীত)


Translate »