নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় এক জুনিয়র পুলিশ কর্মকর্তা বহিষ্কার

কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে এক নারী গণধর্ষণের শিকার

মে ১৬ ২০২০, ০৭:৩৯

Spread the love

লকডাউনের মধ্যে বাড়িতে রওয়ানা দেওয়া ওই নারী পুলিশের সহযোগিতায় এক স্কুল ঘরে কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। কিন্তু সেখানেই তিন ব্যক্তির ধর্ষণের শিকার হয়েছেন তিনি। ঘটনাটি ভারতের রাজস্থান রাজ্যে কোয়ারেন্টিন সেন্টারে অবস্থানরত এক নারীর ক্ষেত্রে ঘটেছে।

একমাসেরও বেশি সময় ধরে ভারতজুড়ে লকডাউন চলছে। এতে করে এক প্রদেশ থেকে অন্য প্রদেশে গিয়ে কাজ করা দি’নমজুরেরা পড়েছেন বিপদে। এরকমই দি’নমজুর ছিলেন ওই নারী। হঠাৎ দেশে লকডাউন ও কাজ ব’ন্ধ হওয়ায় তিনি হেঁটে বাড়ির পথে রওয়ানা দেন। কিন্ত মাইলের পর মাইল না খেয়ে হেঁটে পথ পাড়ি দেওয়ার পর বিপদে পড়ে পুলিশের সাহায্য চান।

পরে থানার পাশের একটি স্কুলে তাকে কোয়ারেন্টিন করে রাখে পু’লিশ। ওইদিন রাতে সেখানেই স্থানীয় তিন ব্যক্তি তাকে ধর্ষণ করে বলে জানিয়েছে পু’লিশ। রাজস্থানের সাওয়াই মধুপুর জেলার সহকারী পু’লিশ পরিদর্শক (এএসপি) এবং ওই ধ’র্ষ’ণের ঘট’নার ত’দ’ন্ত কর্মকর্তা পার্থ শর্মা রয়টার্সকে বলেন, ‘গত ২৩ এপ্রিল যে তিন স্থানীয় ব্যক্তি ধর্ষণের সঙ্গে যুক্ত ছিল তাদের গ্রে’ফ’তা’র করে কা’রাগা’রে পা’ঠানো হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ওই নারীর বয়স ৪০ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে।

এএসপি পার্থ শর্মা আরও বলেন, কো’ভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন কিনা তা জানতে ওই নারীকে স্থানীয় একটি কোয়া’রেন্টাইন সেন্টারে প’রীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। তিনি কার কার সং’স্পর্শে এসেছেন তা যেহেতু আমরা জানি না তাই প’রীক্ষা করা হচ্ছে। তবে এখনো প’রীক্ষার ফ’ল হাতে আসেনি।

প’লিশ এক বি’বৃতিতে জানিয়েছে, বাড়ির উদ্দেশে বেশ কিছুদিন হাঁটার পর থানায় আশ্রয় চাওয়া ওই নারীর নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় এক জুনিয়র পু’লিশ কর্মকর্তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। সূত্র : রয়টার্স

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »