২৪শে জুলাই তারিখেই তুরস্কে খিলাফত ব্যবস্থা বিলুপ্ত করা হয়েছিল

জুলাই ২৫ ২০২০, ২৩:৪৫

Spread the love

২৪শে জুলাই তারিখেই তুরস্কে খিলাফত ব্যবস্থা বিলুপ্ত করা হয়েছিল।

কান্না আসছে…………

এই তুরস্কেই আরবি ভাষায় আজান নিষিদ্ধ করা হয়েছিল এবং হাজার হাজার মসজিদে তুর্কি ভাষায় আজান চালু করা হয়েছিল।

এই তুরস্কেই আরবি বর্ণমালা নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।

এই তুরস্কেই মসজিদকে জাদুঘর বানানো হয়েছিল।

এই তুরস্কেই আরবি ভাষায় আজান চালু করার অপরাধে প্রধানমন্ত্রী আদনান মেন্দারিসকে ফাঁসি দেওয়া হয়েছিল।

এই তুরস্কেই লাইব্রেরিগুলো থেকে সরিয়ে লাখ লাখ কপি ইসলামি সাহিত্য পুড়িয়ে ফেলা হয়েছিল।

এই তুরস্কেই তামাম দুনিয়া থেকে সংগ্রহ করা গুরুত্বপূর্ণ ইসলামি প্রত্নসম্পদ ধ্বংস করা হয়েছিল।

এই তুরস্কেই বদিউজ্জামান সাঈদ নুরসিকে নির্বাসনে পাঠানো হয়েছিল।

এই তুরস্কেই মার্ভে কাভাচি নামের মহিলা সংসদ সদস্যকে কেবল হিজাব পড়ার অপরাধে পার্লামেন্ট থেকে অপমান করে বের করে দেওয়া হয়েছিল।

এই তুরস্কেই বারবার ইসলামপন্থী দলগুলোকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।

এই তুরস্কেই ওস্তাদ নাজিমুদ্দিন আরবাকানের সরকারকে কেবল ইসলামপন্থী হওয়ার কারণে উৎখাত করা হয়েছিল।

এই তুরস্কেই প্রেসিডেন্টের স্ত্রী হিজাব পরিধান করে বলে প্রেসিডেন্টকে শপথ নিতে বাধা দেওয়া হয়েছিল।

এই তুরস্কেই কেবল একটা ইসলামি চেতনার কবিতা আবৃত্তি করার অপরাধে ইস্তাম্বুলের নির্বাচিত মেয়রকে কারাগারে নেওয়া হয়েছিল।

এই তুরস্কেই সকল মাদরাসা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

এই তুরস্কেই পাগড়ি ও টুপি পড়া নিষিদ্ধ করে পশ্চিমা অনুকরণে হ্যাট পরিধান করার নির্দেশনা জারি করা হয়েছিল।

এই তুরস্কেই হিজরি ক্যালেন্ডারের নিষিদ্ধ করে যিশু খ্রিষ্টের গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার চালু করা হয়েছিল।

এই তুরস্কেই সেনাবাহিনীকে ‘কামালবাদ’ নামের এক বিষাক্ত আদর্শের অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছিল, যারা ইসলামের প্রাণসত্ত্বাকে উপড়ে ফেলতে চেয়েছিল।
…………….

গতকাল ছিলো ২৪শে জুলাই। এই ২৪ জুলাই তারিখেই লুসানে চুক্তির মাধ্যমে খিলাফত ব্যবস্থা বিলুপ্ত করার আয়োজন করা হয়েছিল। আজ ২৪ জুলাই আয়া সোফিয়াতে আল্লাহু আকবার ধ্বনি তুলে জুমার জামায়াত আদায় করা হলো। তুরস্ক রাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট কুরআন তিলাওয়াত করে স্পষ্ট একটা বার্তা দিলো বিশ্বকে। খতিব সাহেব উসমানি তরবারি হাতে গোটা দুনিয়াকে স্পষ্ট বার্তা দিলেন।

১০ জুলাই আয়া সোফিয়াকে মসজিদ করার ঘোষণা দেওয়ার পরে ১৭ তারিখ জুমাবার ছিল। সেদিন জুমা না পড়ে কেন আজ ২৪ তারিখ জুমা পড়া হলো?

উত্তর পেয়েছেন?

লেখক: নূর মোহাম্মদ
ডিরেক্টর: গার্ডিয়ান পাবলিকেশন

আমাদের ফেসবুক পাতা

প্রয়োজনে কল করুন 01740665545

আমাদের ফেসবুক দলে যোগ দিন


Translate »